১০ বছরের জেল হতে পারে রিয়ার

তিন দিন জেরার পরে বলিউডের প্রয়াত অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তীকে মঙ্গলবার গ্রেপ্তার করেছে নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো (এনসিবি)। এরপর তাকে ১৪ দিনের বিচারবিভাগীয় হেফাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেয় আদালত।

গ্রেপ্তারের পর রিয়ার বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করেছে এনসিবি। তার বিরুদ্ধে সুশান্তকে মাদক জোগানের অভিযোগ আনা হয়েছে। এই অভিযোগ প্রমাণিত হলে রিয়ার ১০ বছর পর্যন্ত জেল হতে পারে। অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে এনসিবির পাওয়া তথ্য-প্রমাণে সেই আশঙ্কাই প্রবল হচ্ছে।

এনসিবির জিজ্ঞাসাবাদে রিয়া নিজেই স্বীকার করেছেন যে, তিনি সুশান্তের জন্য মাদক কিনতেন এবং জোগান দিতেন। পাশাপাশি এও দাবি করেন যে, তিনি নিজে কখনো মাদক নিতেন না। মঙ্গলবার রাতে অভিনেত্রীর মেডিকেল পরীক্ষা হয়। তাতেও প্রমাণ হয়েছে যে, রিয়া মাদক নিতেন না।

মাদক-যোগে এর আগে গত শুক্রবার রিয়ার ছোট ভাই শৌভিক চক্রবর্তীকে গ্রেপ্তার করে এনসিবি। তার পরই রিয়াকে পরপর তিনদিন জিজ্ঞাসাবাদ করে তারা। তৃতীয় দিনে ছোট ভাই শৌভিককে সামনে বসিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করতেই ভেঙে পড়েন রিয়া। কবুল করে নেন, সুশান্তের জন্য তিনি মারিজুয়ানাসহ নানা ধরনের মাদকের জোগান দিতেন।

গ্রেপ্তারের পর ২৮ বছর বয়সী এই অভিনেত্রীকে নিজেরা হেফাজতে না নিয়ে ১৪ দিনের বিচারবিভাগীয় হেফাজতের আবেদন করে নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো। পরে আদালত রিয়াকে আগামী ২২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বিচারবিভাগীয় হেফাজতে নেয়ার নির্দেশ দেয়।

এদিকে মঙ্গলবার গ্রেপ্তার দেখানোর পর রিয়ার রাত কেটেছে এনসিবির লক আপে। এরপর বুধবার সকাল থেকে শুরু হয় তার জেল যাত্রার প্রস্তুতি। তাকে মুম্বাইয়ের বাইকুল্লা জেলে রাখা হবে। আজ তার জামিনের আবেদন করার কথা। জামিন না হলে ১৪ দিন রিয়াকে এই জেলেই কাটাতে হবে।