হু’জুর আ’মার সঙ্গে স্ত্রী’র মতো ব্য’বহার করেছে -”বিস্তারীত ভিতরে”

মাদরাসার এক শিক্ষার্থীকে মেয়ে বানিয়ে দিনের পর দিন সর্বনাশ ক’রেছেন এলাকায় ‘হুজুর’ বলে ব্যা’পক পরিচিত এক মাদরাসা শিক্ষক। ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজে’লার উচাখিলা এলাকায় এ ঘ’টনা ঘ’টে। শুক্রবার (১১ ডিসেম্বর) স্থা’নীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানের কাছে মেয়ের পরিবারের লোকজন বিচার চাইতে গেলে ঘ’টনাটি প্র’কাশ পায়।

আরও পড়ুন : ফের সারাদেশে লকডাউন, শুরু হবে যেদিন থেকে। আগামী ১৪ এপ্রিল থেকে এক সপ্তাহের জন্য দেশব্যাপী সর্বাত্মক লকডাউনের বিষয়ে সরকার চিন্তাভাবনা করছে বলে জা’নিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। শুক্রবার সকালে ওবায়দুল কাদের তার সরকারি বাসভবনে ব্রিফিংকালে সাংবাদিকদের এ কথা জা’নান।

তিনি বলেন, দেশে করো’না সংক্র’মণ ভ’য়াবহ রূপ নিয়েছে। লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে সংক্র’মণ ও মৃ ‘ত্যুর হার। সেই স’ঙ্গে বাড়ছে জনগণের অবহেলা ও উদাসীনতা। ‘এমতাবস্থায় সরকার জনস্বার্থে আগামী ১৪ এপ্রিল থেকে এক সপ্তাহের জন্য সর্বাত্মক লকডাউনের বিষয়ে সক্রিয় চিন্তাভাবনা করছে।’

চলমান এক সপ্তাহের লকডাউনে জনগণের উদাসীন মা’নসিকতার কোনো পরিবর্তন হয়েছে বলে মনে হয় না বলেও জা’নান সেতুমন্ত্রী। করো’না ভা’ইরাসের সংক্র’মণ বাড়ায় সরকার সারা দেশে এক সপ্তাহের ক’ঠোর বিধিনি’ষেধ জা’রি করে গত ৪ এপ্রিল। গত সোমবার সকাল ৬টা থেকে ‘লকডাউন’ শুরু হয়। আগামী ১১ এপ্রিল রাত ১২টা পর্যন্ত থাকবে এই ‘লকডাউন’।

তবে ‘লকডাউন’ বাড়বে কিনা এ নিয়ে গত কয়েক দিন ধ’রেই আলোচনা চলছিল। আজ সেতুমন্ত্রী লকডাউন বাড়ানোর সেই ই’ঙ্গিতই দিলেন। ‘লকডাউনে’ গণপরিবহন ও শপিংমল ব’ন্ধ রাখার সিদ্ধা’ন্ত হলেও গত বুধবার শর্ত সাপেক্ষে সরকার গণপরিবহনে চলাচলের অনুমোদন দেয়। আর আজ শুক্রবার থেকে শপিংমল ও দোকানপাট খোলা হয়েছে।

তবে ‘লকডাউন’ শুরুর পর থেকেই রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে পদে পদে লঙ্ঘিত হচ্ছে স্বা’স্থ্যবিধি। সবার মধ্যে উদাসীনতা দেখা যাচ্ছে। এমনকি এসব দেখভালের দায়িত্বপ্রাপ্তরাও একরকম নির্বিকার। এ নিয়ে কারও যেন ‘মাথাব্য’থা নেই।

ব্যা’পকভাবে গণপরিবহণ চলার কারণে অনেক রাস্তায় যানজট সৃষ্টি হচ্ছে। বিধিনি’ষেধ উপেক্ষা করে প্রয়োজনে-অপ্রয়োজনে মানুষ রাস্তায় বের হচ্ছেন। কাঁচাবাজার, মহল্লার দোকানপাটসহ বিভিন্ন স্থানে মানুষের জটলা দেখা যাচ্ছে, সেখানে নেই কোনো সামাজিক দূ’রত্ব। মাস্কও পরেন না অনেকে।