সংসদে জয়া বচ্চনের বক্তব্যে সমালোচনার ঝড়

ফের বলিউডে আলোচনার মধ্যমণি হয়ে ধরা দিলেন বলিউড অভিনেত্রী জয়া বচ্চন। বলিউডের মাদক-যোগ অভিযোগের সমালোচনা করে সংসদে দাঁড়িয়ে বক্তব্য রেখেছিলেন সমাজবাদী পার্টির এই সাংসদ। আর সেই বক্তব্য নিয়ে রীতিমত তর্ক বিতর্ক শুরু হয়ে যায়।

সাংসদ জয়া তার বক্তব্যে বলিউডকে অপমান করা ব্যক্তিদের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করেন। সেই বক্তব্য সমর্থন দিয়েছেন ইন্ডাস্ট্রির অনেক তারকা। সিনেমা বিষয়ক সংগঠনগুলোও জয়াকে বাহবা দিয়েছেন।

জয়া বচ্চন তার বক্তব্যে বলেন, ‘হাতে গোনা দুএকজন মানুষের মাদকের সঙ্গে সংশ্লিষ্টতা নিয়ে সমগ্র বলিউড ইন্ডাস্ট্রির দুর্নাম হচ্ছে। এটা বলিউডের আসল ছবি নয়। আন্তর্জাতিকভাবে সুনাম কুড়ানো বলিউডকে ভুলভাবে উপস্থাপন করা হচ্ছে। এরা যে থালায় বসে খায়, সেই থালারই দুর্নাম গায়।

সমাজবাদী পার্টির এই নেত্রী আরও জানান, যে কয়েকটা হাতে গোনা অভিযোগ আনা হচ্ছে, তার সত্যতা নিয়েও প্রশ্ন আছে। কোনো অভিযোগ এখন পর্যন্ত প্রমাণিত নয়।

জয়ার এই বক্তব্য রীতিমত কালবৈশাখী ঝড় তুলেছে অনলাইনে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। শুধু তাই নয়, তাকে বলা হচ্ছে ‘ভণ্ড’। টুইটারে চলছে ‘হ্যাশট্যাগ শেম অন জয়া বচ্চন’ ট্রেন্ড। কাকে বাঁচাতে চাচ্ছেন জয়া বচ্চন? এমন প্রশ্নও উঠেছে অনেকের পোস্টে, মন্তব্যে। তাই নিরাপত্তার খাতিরে বচ্চনদের জুহুর বাড়ি ‘জলসা’র সামনে পুলিশ মোতায়েন করেছে বৃহন মুম্বাই করপোরেশন (বিএমসি)।

জুহুতে বচ্চন পরিবারের বাংলো জলসার বাইরে বিরাট বাহিনীকে পাহারায় রেখেছে মুম্বাই পুলিশ। আগাম সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নিতেই নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে বলে খবর।

বুধবার জয়া বচ্চনের পাশে দাঁড়িয়েছে শিব সেনা। দলীয় মুখপাত্র সামনায় বিজেপি নেতা রবি কিষেণের সমালোচনা করে বলা হয়, ‘যারা এই দাবি করছেন, তারা ভণ্ড। তারা দু’রকমের মন্তব্য করেন।’ সামনায় আরও বলা হয় যে, যারা দাবি করছেন, সব শিল্পী ও টেকনিশিয়ানরা মাদকাসক্ত, তাদেরই আগে ডোপিং পরীক্ষা করানো হোক।

এছাড়াও মঙ্গলবার রাজ্যসভায় বলিউডের অভিনেত্রী কঙ্গনা রনাওয়াতের নোংরা মন্তব্যের কড়া জবাব দিয়েছেন সমাজবাদী পার্টির সাংসদ ও অভিনেত্রী জয়া বচ্চন। বিজেপির সাংসদ রবি কিষণের মন্তব্যেরও তীব্র নিন্দা করেন। তিনি বলেন, ‘মুম্বাই ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিকে অপমান করার ষড়যন্ত্র চলছে। এটা লজ্জার।’