শ্রীলঙ্কা সফরে রুবেলের নজর

টেস্ট ক্রিকেটে নিজের বোলিং গড় (৭৬.৭৭) দেখে রুবেল হোসেন লজ্জাবনত হননি কি না, স্পষ্ট নয়। সীমিত ওভারের বোলারের ট্যাগ লেগে আছে তার নামের পাশে। সাদা পোশাকে তার বোলিং বরাবরই বিবর্ণ। ২৭ টেস্টে উইকেট ৩৬টি। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ৬০ ম্যাচে ৯৭ উইকেট, গড় ৫৪.০৩।

তার পরও নির্বাচকরা আস্থা রাখার চেষ্টা করছেন রুবেলের ওপর। ওয়ানডে, টি-২০ তে প্রতিযোগিতা বেশ প্রবল বলেই কি না, অভিজ্ঞ এই পেসারকে লংগার ভার্শনে পরখ করে দেখছেন নির্বাচকরা। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে রাওয়ালপিন্ডি টেস্টে খেলানো হয়েছিল ডানহাতি এই পেসারকে। তিন উইকেট পেয়েছিলেন ১১৩ রান দিয়ে।

গতকাল রুবেলের কথায় স্পষ্ট টেস্টকে ঘিরেই এখন চিন্তা করছেন তিনি। আসন্ন শ্রীলঙ্কা সফরকে পাখির চোখ করে এগুচ্ছেন তিনি। করোনাকালে ক্রিকেটারদের ব্যক্তিগত অনুশীলনের তিন পর্বে না থাকলেও চতুর্থ পর্বে যোগ দিয়েছেন রুবেল। গত কয়েক দিন মিরপুরে অনুশীলন করেছেন। লঙ্কায় তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজে বাংলাদেশ দলে জায়গা করে নিতে চান তিনি। সুযোগ পেলে নিজের সেরাটা দেওয়ার আশা করছেন।

করোনার ধাক্কা কাটিয়ে বাংলাদেশের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার অপেক্ষায় রুবেল। গতকাল বলেছেন, ‘ইংল্যান্ডে খেলা শুরু হয়েছে, পাকিস্তানও খেলছে তাদের সঙ্গে। আমরাও আশাবাদী, সামনে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে একটি সিরিজ আছে। আমরা সবাই আশাবাদী যে খুব সুন্দরভাবে সিরিজটি হবে।’

দলে সুযোগ পাওয়ার আশায় আছেন ৩০ বছর বয়সি এই পেসার। গতকাল তিনি বলেছেন, ‘মূলত আমার নজর শ্রীলঙ্কা সিরিজ। ঐ সিরিজে আমার লক্ষ্য থাকবে দলে সুযোগ পাওয়া, আর সুযোগ পেলে ভালো খেলার চেষ্টা করব, আপ্রাণ চেষ্টা করব। আর আমি ঐ অনুযায়ী অনুশীলন করতেছি। ফিটনেস বলেন, বোলিং বলেন আরো কীভাবে স্কিল বাড়ানো যায় এটা নিয়ে কাজ করছি।’

জাতীয় দলের প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু বলেছিলেন, করোনার প্রভাব, লম্বা সফর ও তিন টেস্ট মিলে শ্রীলঙ্কা সফরটা বেশ বড় হবে। প্রায় দুই মাসের সফর। দীর্ঘ বিরতির পর ক্রিকেটে ফেরা হচ্ছে বলে পেসারদের ইনজুরির ঝুঁকিও থাকবে। তাই লঙ্কা সফরের স্কোয়াডে অন্তত ছয় জন পেসার রাখতে চান নির্বাচকরা। রুবেলের চিন্তা এখন এই ছয় জনের একজন হওয়া।

টেস্ট দলের নিয়মিত পেসার রাহী-এবাদতরা রয়েছেন। তাসকিন, মুস্তাফিজরাও বিবেচনায় আছেন। সাইফউদ্দিনকে টেস্ট দলে দেখা যাবে এবার। ফিট হওয়া খালেদ আহমেদ, শফিউল, আল-আমিনদের সঙ্গে লড়াই হবে রুবেলের। পেসার হিসেবে শ্রীলঙ্কা সফরের দলে জায়গা পাওয়া সহজ হবে না। তবে দেশের বাইরে সর্বশেষ টেস্টের একাদশে ছিলেন বলে কিছুটা গুরুত্ব পেতেও পারেন রুবেল।