মারধরের অভিযোগে হিরো আলমের বিরুদ্ধে মামলা

শুটিংয়ের পাওনা টাকা চাইতে গেলে এক জুনিয়র আর্টিস্টকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে আশরাফুল ইসলাম আলম ওরফে হিরো আলমের বিরুদ্ধে। এই ঘটনায় আদালতে মামলা করেছেন ওই জুনিয়র অভিনেতা।

|আরো খবর
নকল মাস্ক: সাবেক ছাত্রলীগ নেত্রীর বিরুদ্ধে মামলা
এনু-রুপনের চার মামলায় সিআইডির চার্জশিট
শাহেদের অস্ত্র ও মাদক মামলা তদন্ত করবে ডিবি
ওই জুনিয়র আর্টিস্টের নাম নয়ন মণ্ডল ওরফে জুনিয়র মিশা। গতকাল বৃহস্পতিবার ঢাকা মহানগর হাকিম আতিকুর রহমানের আদালতে মারধরের অভিযোগে মামলা করেন তিনি।
মামলা সূত্রে জানা গেছে, ভুক্তভোগী আতিকুর রহমান হিরো আলমের সঙ্গে ‘সাহসী হিরো আলম’ ছবিতে সেকেন্ড ভিলেন (দ্বিতীয় খলনায়ক) হিসেবে অভিনয়ের জন্য ১৫ হাজার টাকা চুক্তি করেন। চুক্তি অনুযায়ী গাজীপুরের মনপুরা শুটিং স্পটে অভিনয় করতে যান। সেখানে কিছু দিন অভিনয়ও করেন।

এর মধ্যে ঢাকায় আসার সময় হিরো আলম তার হাতে ৫০০ টাকা ধরিয়ে দিয়ে বলেন, টাকা পরে দেব। নয়ন বাসায় এসে কিছুদিন পর হিরো আলমের মোবাইলে ফোন দেন। তখন হিরো আলম ফোনে নয়নকে বলে কিসের টাকা পাবি তুই। তুই কোনো টাকা পাবি না। এরপর থেকে হিরো আলম আর নয়নের ফোন ধরত না। তারপর নয়ন গাজীপুরে ছবির শুটিংস্থলে যান। সেখানে নয়ন হিরো আলমের কাছে টাকা চাইলে শুটিংয়ের দা দিয়ে আঘাত করে। কিল-ঘুষি মারে। নয়ন সেখান থেকে ফিরে আসেন।

এরপর গত ১৯ জুন নয়ন এফডিসিতে মানববন্ধনে অংশ নিতে যান। সেখানেও হিরো আলম তাকে মারধর করেন। হিরো আলমের লোকজনের ভয়ে নয়ন জীবন নিয়ে শঙ্কায় আছেন। তাই তিনি আদালতে মামলাটি করেন।

এদিকে আদালত বাদীর জবানবন্দি গ্রহণ করে তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানাকে তদন্ত করে ১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য নির্দেশ দিয়েছেন।