মানুষের উপার্জনের পথ সচল করাই হবে আমার বড় স্বার্থকতা : শাকিব খান

বৃহস্পতিবার চিত্রনায়ক শাকিব খান করোনাভাইরাস সংক্রমণ পরবর্তী কাজ শুরু করেছেন। গতকাল রাকজধানীর ৩০০ ফিট সড়কের পূর্বাচল এলাকায় ও বিএফডিসিতে নবাব এলএলবি ছবির শুটিং করেছেন। শুটিং পরবর্তী নিজের সোশ্যাল হ্যান্ডেলে শাকিব তার প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন।

শাকিব বলেন, আমি সবসময়ই কাজ করি দেশের সাধারণ মানুষদের মুখে হাসি ফোটানোর জন্য। চেষ্টা করি বাংলাদেশের চলচ্চিত্রকে বিশ্ব দরবারে পৌঁছে দেয়ার জন্য। শত প্রতিকূলতার পরেও আমার এই প্রচেষ্টা থেমে নেই। এরমধ্যে বৈশ্বিক করোনার কারণে আজ আমার ইন্ডাস্ট্রি ও দেশের সাধারণ মানুষ ভালো নেই। খাদ্য, বস্ত্র, বাসস্থান, চিকিৎসা, শিক্ষার পাশাপাশি দৈনন্দিন জীবনে বিনোদন সংস্কৃতিও ওতোপ্রোতভাবে জড়িত। এছাড়া এ মাধ্যম অনেকের জীবিকা নির্বাহের একমাত্র উৎস। মানুষগুলো এমন দুঃসময়েও ভালোবাসার টানে পড়ে আছেন এই ইন্ডাস্ট্রিতে। আমি তাদের জন্যও কাজ করে যাচ্ছি। আমার এই প্রচেষ্টা সবসময় অব্যাহত থাকবে।

তিনি বলেন, আমার কাজ বিনোদন দেওয়া। যেহেতু আমি এ মাধ্যমের প্রতিনিধি তাই আমার কাজের মাধ্যমে করোনা জর্জরিত সাধারণ মানুষদের মনে একটু হলেও যদি আনন্দ দিতে পারি, আমার ইন্ডাস্ট্রির মানুষের উপাজর্নের পথ সচল করতে পারি; এটাই হবে আমার বড় স্বার্থকতা।

সময়ের শীর্ষ এই অভিনেতা বলেন,আমি সবসময় ভালো কাজের প্রতিনিধি হতে চেয়েছি। শুরু থেকে সেই চেষ্টা করে আসছি, আগামীতেও করবো ইনশাআল্লাহ। এই সংকটকালে আজ থেকে ‘নবাব এলএলবি’ নামে নতুন সিনেমার শুটিং শুরু করেছি। আমাকে যারা শাকিব খান বানিয়েছেন দেশ বিদেশের সেই কোটি মানুষদের দোয়া ও ভালোবাসা সঙ্গে নিয়ে সামনে আগানোর চেষ্টায় থাকলাম। সবার জন্য ভালোবাসা।

শাকিবের বিপক্ষে সাম্প্রতিক সময়ে শিডিউল ফাঁসানোর অভিযোগ উঠলেও তিনি গতকাল সঠিক টাইমেই ইউনিটে উপস্থিত হব বলে নির্মাতা সূত্রে জানা গেছে।