বার্সা ছাড়লে কোথায় যাবেন মেসি

বায়ার্ন মিউনিখের বিপক্ষে ৮-২ গোলের হারের ক্ষত এখনও দগদগে। কিন্তু সেই দুঃস্বপ্ন এখন আর তাড়া করছে না বার্সেলোনা সমর্থকদের। অধিক শো’কে পা’থর হওয়ার দ’শা তাদের। এমন দিন আসবে, দুঃস্বপ্নেও ভাবেননি বার্সার সমর্থকরা।

মঙ্গলবার রাতে আচমকা এক ফ্যাক্স বার্তা যেনধাক্কা নাড়িয়ে দিয়েছে গোটা ফুটবলবিশ্বকে। নিজের আইনজীবীকে দিয়ে ফ্যাক্সের মাধ্যমে বার্সেলোনা ছাড়ার ইচ্ছার কথা ক্লাব কর্তৃপক্ষকে জানিয়ে দিয়েছেন কাতালানদের ইতিহাসের সর্বকালের সেরা ফুটবলার লিওনেল মেসি। চুক্তির একটি ধারা সক্রিয় করে নতুন মৌসুম শুরুর আগেই বিনা ট্রান্সফার ফি’তে ন্যুক্যাম্প ছাড়তে চান ৩৩ বছর বয়সী আর্জেন্টাইন মহাতারকা।

গত কয়েক বছরে ক্লাব কর্তৃপক্ষের একের পর এক হঠকারী সিদ্ধান্তে চূড়ান্ত হতাশ হয়েই বার্সেলোনার সঙ্গে দুই দশকের সম্পর্ক ছিন্ন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মেসি। ফ্যাক্স পাওয়ার কথা নিশ্চিত করলেও এত সহজে মেসিকে ছাড়তে নারাজ বার্সেলোনা। বিনামূল্যে তো নয়ই।

দুই পক্ষ অনড় থাকলে আই’নি জ’টিলতায় ব্যাপারটি আদাল’তে গড়াতে পারে। মেসিকে অন্য দলের জার্সিতে দেখতে হবে, এটা মানতেই পারছেন না বার্সার সমর্থকরা। ন্যুক্যাম্পের বাইরে জমায়েত হয়ে চলছে তাদের বি’ক্ষোভ ও আ’ন্দোলন। মেসির দলবদল ঠেকাতে ক্লাব সভাপতি হোসেপ মা’রিয়া বার্তোমেউর প’দত্যাগের দা’বি তুলেছেন সম’র্থকরা। ‘

মেসি তুমি থেকে যাও’, ‘বার্তোমেউর পদত্যাগ চাই’ স্লোগানে মুখরিত ন্যুক্যাম্প প্রাঙ্গণ। তবে সমর্থকদের অবুঝ মন যাই বলুক, স্পেনের শীর্ষস্থানীয় সব গণমাধ্যমের শিরোনাম ‘মেসি-বার্সেলোনা বিচ্ছেদ’। মেসি সত্যিই ন্যুক্যাম্প ছাড়লে তাকে পেতে আগ্রহী ক্লাবের অভাব হবে না। ম্যানসিটি এরই মধ্যে মাঠে নেমে পড়েছে। তবে মেসির দলবদলের পথে অনেক বাধাও আছে।

চুক্তির শর্ত

বার্সেলোনার সঙ্গে মেসির চুক্তি ২০২১ সাল পর্যন্ত। তবে চুক্তির একটি শর্ত অনুযায়ী চুক্তি শেষ হওয়ার আগেও চাইলে ক্লাব ছাড়তে পারবেন মেসি। সেক্ষেত্রে তাকে পেতে আগ্রহী ক্লাবকে দলবদলের পেছনে কোনো অর্থ খরচ করতে হবে না। কিন্তু চুক্তির বিশেষ ধারাটি কার্যকর করার ক্ষেত্রে ঝামেলা আছে বলেই মেসির বার্সেলোনা ছাড়া নিয়ে জটি’লতা দেখা দিয়েছে।