দেবী দুর্গার রূপে আসছেন মিমি

তৃণমূল সাংসদ এবং টলিউডের এক নম্বর হিরোইন মিমি চক্রবর্তী এবার সাজলেন দেবী দুর্গার চরিত্রে।

আগামী ১৭ সেপ্টেম্বর মহালয়ার ভোরে দুই বাংলা দর্শকদের প্রিয় চ্যানেল। স্টার জলসার পর্দায় দেবী দুর্গার চরিত্রে দেখা যাবে মিমিকে। থিম ‘অকাল বোধন’এবং পরিচালনায় কমলেশ্বর মুখোপাধ্যায়।

ক্যামেরার সামনে উত্তরবঙ্গের জলপাইগুড়ির মেয়ে মিমিকে অনেক চরিত্রে দেখা গেলেও, এই প্রথমবার দুর্গার চরিত্রে অভিনয় করেন তিনি। প্রথমবার এমন এক ভূমিকায় কাজ করে কেমন অভিজ্ঞতা হলো সাংসদ তথা অভিনেত্রীর, তা জানালেন কালের কণ্ঠকে।

‘প্রথমবার দুর্গার চরিত্র করছি, ভালো লাগছে, তবে একেবারে অন্যরকম অভিজ্ঞতা। পাশাপাশি একটা চাপা টেনশনও রয়েছে, এতদিন যারা মহালয়ায় দুর্গা করেছেন তাঁদের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে কাজ করাটা চ্যালেঞ্জের তো বটেই,’ বললেন মিমি।

করোনার আবহে পূজা কেমন কাটবে তা নিয়ে অনেক অনিশ্চয়তা রয়েছে কিন্তু মহালয়ার প্রস্তুতিতে ঘাটতি রাখেননি স্টার জলসা চ্যানেলের কর্মকর্তারা। অকাল বোধনের থিমে মহালয়ার অনুষ্ঠানটি সাজিয়েছেন কলকাতার সব সেরা তারকাদের নিয়ে।

রাম-সীতা চরিত্রে থাকছেন জিতু কমল ও মধুমিতা সরকার। রাবণ সাজছেন রাজেশ শর্মা। এঁদের নিয়েই শুটিং শুরু করলেন কমলেশ্বর। শ্যুটিং-এর কাজ শেষ। পোস্ট শ্যুট কাজ শুরু হয়েছে ইতিমধ্যেই। দুর্গা চরিত্রের অভিনয় কেমন লাগল তা নিয়ে সোজাসাপ্টা উত্তর দিয়েছেন মিমি।

‘একই দিনে একাধিক পরিবর্তন ছিল। এত গয়না, বেনারসি পরে ‘ফাইট সিক্যুয়েন্স’ শ্যুট করা বেশ কঠিনই হয়েছিল।’

তবে সব মিলিয়ে ‘অকাল বোধন’ দর্শকদের মনে দাগ কাটবে বলেই আশাবাদী মিমি। আরুনি প্রার্থনা করেছেন যে মায়ের আবির্ভাবের সঙ্গে সঙ্গে কেটে যায় করোনার করাল ছায়া।