টুরিস্ট সেজে গাইডকে হত্যা!

সিলেটের পর্যটন কেন্দ্র জাফলংয়ে টুরিস্ট গাইড সাদ্দাম হোসেন (৩০) হত্যার ঘটনায় সিলেট পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) নারায়ণগঞ্জ থেকে দুই জনকে গ্রেফতার করেছে। এসময় পুলিশ গ্রেফতারকৃতদের কাছ থেকে সাদ্দামের ব্যবহৃত ডিএসএলআর ক্যামেরা, মোবাইল ফোন ও হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত ছোরা উদ্ধার করে। ছিনতাইয়ের উদ্দেশ্যে টুরিস্ট সেজে তারা সাদ্দামকে হত্যা করে বলে পুলিশ ধারণা করছে।
নিহত সাদ্দাম হোসেন জাফলংয়ের কালিনগর গ্রামের বাসিন্দা। পেশায় টুরিস্ট গাইড হওয়ার পাশাপাশি ছবিও তুলতেন তিনি।
গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছে, নারায়ণগঞ্জ জেলার রূপগঞ্জ থানাধীন চনপাড়া (পুনর্বাসন কেন্দ্র) দ্বীন ইসলামের ছেলে হুমায়ুন ও একই এলাকার সানীর ছেলে সজল। সোমবার (২৭ জুলাই) পুলিশ প্রযুক্তি সহায়তায় তাদের ওই এলাকা থেকে গ্রেফতার করে।

মঙ্গলবার (২৮ জুলাই) দুপুরে তাদের আদালতে নেওয়া হয় বলে জানিয়েছেন পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) সিলেট’র পুলিশ সুপার মুহাম্মদ খালেদ উজ জামান।

তিনি জানান, গোয়াইঘাট থানাধীন কালীনগর গ্রামের সোনাটিলা ফরেস্ট বাংলার টিলায় পরিকল্পিতভাবে সাদ্দাম হোসেনকে হত্যা করা হয়। গ্রেফতারকৃতরা টুরিস্ট পরিচয়ের আড়ালে ছিনতাই করার উদ্দেশ্যে সাদ্দামকে ওই টিলায় নিয়ে উপুর্যুপরি ছুরিকাঘাত করলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। গ্রেফতারকৃতরা সাদ্দামের ঘাড়সহ শরীরের বিভিন্নস্থানে ছয়টি ছুরিকাঘাত করে।

তিনি আরও জানান, থানা পুলিশের পাশাপাশি পিবিআই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে স্থানীয়দের কাছ থেকে নানা তথ্য নেয়। এসময় হত্যাকারীদের একজনের টি শার্টের রং সম্পর্কে স্থানীয়রা পুলিশকে তথ্য দেয়। পরে পিবিআই একটি দল প্রযুক্তির সহায়তায় ছায়া তদন্ত শুরু করলে গ্রেফতারকৃতদের সম্পর্কে তথ্য পায়।

সাদ্দাম হোসেন হত্যার ঘটনায় নিহতের স্ত্রী নছিরা বেগম বাদী হয়ে সিলেটের গোয়াইনঘাট থানায় অজ্ঞাত নামা কয়েকজনকে আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেন।