কালিয়াকৈরে প্রবাসীর স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা

গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার শাকাশ্বর গ্রামে শনিবার (১২ সেপ্টেম্বর) সকালে জিয়াসমিন আক্তার (৩০) নামে এক প্রবাসীর স্ত্রীকে খোকন হোসেন নামের এক মাদক বিক্রেতা কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা করেছে। এঘটনায় এলাকাবাসী খোকন হোসেনকে আটক করে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোর্পদ করেছে। ওই প্রবাসীর স্ত্রী জিয়াসমিন আক্তারকে মুমূর্ষ অবস্থায় উদ্ধার করে উত্তরা শিন শিন জামান হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এলাকাবাসী ও পুলিশ জানায়, গ্রেফতারকৃত মাদক বিক্রেতা খোকন হোসেন দীর্ঘদিন ধরে অনৈতিক কাজের প্রস্তাব দিয়ে ব্যর্থ হয়। পরে শনিবার সকালে বাড়িতে একা পেয়ে আবার অনৈকিত কাজের প্রস্তাব দিলে প্রবাসীর স্ত্রী এতে রাজি না হলে একটি ধারালো দা দিয়ে তাকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা করে। এসময় জিয়াসমিনের চিৎকারে প্রতিবেশিরা এগিয়ে এসে খোকন হোসেনকে আটক করে গণধোলাই দিয়ে হাত পা বেধে রাখে। পরে মৌচাক পুলিশ ফাঁড়ীতে খবর দেওয়া হলে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে খোকনকে গ্রেফতার করেন।

পরে প্রতিবেশিরা মুমূর্ষ অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে প্রথমে কোনাবাড়ী পপুলার হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে উত্তরার শিন শিন জামান হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করেন। সেখানের চিকিৎসকরা জানান, আহত জিয়াসমিনকে দুই হাতের বিভিন্ন স্থান ও ঘাড়ে একাধিক কোপসহ কমপক্ষে ২৫-২৬টি কোপানোর আঘাত রয়েছে। গ্রেফতারকৃত খোকন হোসেন হলো একই গ্রামের আক্কাস আলীর ছেলে। আহত জিয়াসমিন আক্তার শাকাশ্বর গ্রামের লেবালন প্রবাসী চান মিয়ার স্ত্রী।
আহত জিয়াসমিন আক্তার জানান, তার আজে বাজে কথায় সায় না দেওয়ায় আমার উপর হামলা করেছে। মৌচাক পুলিশ ফাঁড়ীর ওসি মোঃ মনিরুজ্জামান জানান, এ ঘটনায় খোকন নামের এক দুর্বৃত্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ ঘটনায় একটি মামলার প্রস্তুতি চলছে।