করোনামুক্ত হয়ে অভিনয়ে পপি

করোনাভাইরাস সংক্রমণ থেকে মুক্ত হয়ে ফের অভিনয়ে ফিরছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারপ্রাপ্ত অভিনেত্রী সাদিকা পারভীন পপি। শিগগিরই তিনি শুরু করবেন ‘ভালোবাসার প্রজাপতি’ শিরোনামে নতুন একটি ছবির শুটিং। সিনেমাটি যৌথভাবে পরিচালনা করবেন রাজু আলীম ও মাসুমা তানি। শিগগিরই এ সিনেমার শুটিং শুরু হবে বলে জানিয়েছেন নির্মাতাদ্বয়। ভালোবাসা, লকডাউন, ডিভোর্স প্রভৃতি বিষয় উঠে আসবে সিনেমাটিতে। এতে পপিকে দেখা যাবে একজন চিকিৎসকের চরিত্রে।

পপি বলেন, ‘নতুন সিনেমাটি আমার জন্মদিনে উপহার হিসেবে পেয়েছি। এর গল্প অসাধারণ। গল্প ও চরিত্র মিলে ভীষণ পছন্দ হয়েছে। দর্শক দারুণ একটি সিনেমা উপহার পাবেন- এ প্রত্যাশা করতেই পারি।’

বেশ কিছুদিন ধরে আহামরি কোনো ভালো ছবিতে পাওয়া যাচ্ছে না আপনাকে। এ প্রসঙ্গে পপি বলেন, ‘সব সময় ভালো চরিত্র ও গল্পের সন্ধান করি। তাই গতানুগতিক গল্প বা চরিত্রে কাজ করার কোনো ইচ্ছা নেই। এর মানে এই নয় যে, আমি কাজ ছেড়ে দিয়েছি। ভালো গল্পের সিনেমা পেলে অবশ্যই করব।’

সম্প্রতি করোনাভাইরাস থেকে মুক্ত হয়েছেন পপি। করোনা আক্রান্তকালে তিনি ছিলেন খুলনার খালিশপুরে নিজ গ্রামে। পুরো লকডাউনে নিজ গ্রামের বাড়িতেই সময় কেটেছে তার। পরিবারের সবার সঙ্গে সেখানে বেড়াতে গিয়ে আটকা পড়ে যান। করোনায় আক্রান্ত হওয়ার আগে অবশ্য নিজ এলাকায় অসহায় মানুষের মাঝে একাধিকবার ত্রাণ বিতরণ করতে দেখা গেছে পপিকে। করোনা মুক্ত হয়ে সম্প্রতি ঢাকায় ফিরেছেন চলচ্চিত্রের এই অভিনেত্রী। কিছুদিন আগে ছিল এই নায়িকার জন্মদিন। অন্যান্য বছরের মতো এবারের জন্মদিনে কোনো আয়োজন না থাকলেও ভক্ত ও শুভাকাঙ্ক্ষীদের শুভেচ্ছায় তিনি ছিলেন উচ্ছ্বসিত। সেই ফুরফুরে মেজাজের রেশ নিয়েই তিনি ফিরছেন শুটিংয়ে। নতুন এ ছবি ছাড়াও তার হাতে রয়েছে একাধিক ছবি। করোনা পরিস্থিতি আরও একটু ভালো হলে সে ছবিগুলোর কাজও শুরু হবে বলে জানান পপি।

পপি বলেন, ‘ঘরে বসে থেকে আর কত দিন। জীবন তো চালাতে হবে। তাই করোনাকে নিয়েই আমাদের ঘর থেকে বের হতে হচ্ছে। কাজ করতে হচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় নাটক-সিনেমার কাজও শুরু হয়েছে। আমিও কাজে ফিরতে চাই। নিয়মিত কাজ করতে চাই।’

করোনায় দীর্ঘ সময় বন্ধ ছিল সিনেমার শুটিং। এখনো বন্ধ রয়েছে সিনেমা হল। বছরের শেষপ্রান্তে চলে এলেও এখনো সিনেমা হল খোলা নিয়ে দেখা দিয়েছে অনিশ্চয়তা। সব মিলিয়ে ইন্ডাস্ট্রির ক্ষতি নিয়ে পপি বলেন, ‘গোটা দেশ স্থবির হয়ে গেলে আর্থিক সংকট তো দেখা দেবেই। শুধু চলচ্চিত্রই নয়, সব ক্ষেত্রেই লোকসান গুনতে হচ্ছে। সারা বছর যাই হোক ঈদের এই সময়টাতে চলচ্চিত্রের অবস্থা ভালো থাকে। কিন্তু গত দুই ঈদে কোনো ছবি মুক্তি পায়নি। চলচ্চিত্রের ইতিহাসে এই প্রথম ঈদে কোনো ছবি মুক্তি পায়নি আমার।’