এলপিএলে সাকিবের নাম থাকা বেআইনি নয়

নিষেধাজ্ঞায় থাকা ক্রিকেটার সাকিব আল হাসানের নাম এসেছে লঙ্কা প্রিমিয়ার লিগের (এলপিএল) নিলামে। নিষেধাজ্ঞা শেষ হওয়ার আগে কোনো ক্রিকেটারের নাম কী থাকতে পারবে নিলামে? ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা আইসিসি কি বলছে?

২৯ অক্টোবর শেষ হচ্ছে সাকিবের নিলাম। দ্বীপরাষ্ট্রে লঙ্কা প্রিমিয়ার লিগ শুরু হবে নভেম্বরে। তাই ড্রাফটে সাকিবের নাম থাকাটা বেআইনি নয় বলে জানিয়েছে আইসিসি। আইসিসির গণমাধ্যম ও যোগাযোগ কমিটির ম্যানেজার রাজশেখর রাও বলেন, ‘যেহেতু সাকিব নিজে ক্রিকেটীয় কোনে কার্যক্রমে জড়িত নয় সেজন্য তার নাম থাকা বেআইনি কিছু নয়।’

ফ্রাঞ্চাইজি ক্রিকেটে সব সময়ই চাহিদার শীর্ষে থাকে সাকিবের নাম। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর নিয়মিত ফ্রাঞ্চাইজি ক্রিকেট খেলছেন। আইপিএল, সিপিএল, পিএসএল, বিগ ব্যাশ এবং কাউন্টি ক্রিকেটে স্বগৌরবে তার উপস্থিতি।

নিষেধাজ্ঞা শেষ হওয়ার পরই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার সুযোগ রয়েছে সাকিবের। বাংলাদেশের শ্রীলঙ্কা সফরের দ্বিতীয় টেস্টেই দেখা যেতে পারে তাকে। এরপর লঙ্কা প্রিমিয়ার লিগেও দেখা যেতে পারে বাঁহাতি স্পিন অলরাউন্ডারকে। নিষেধাজ্ঞার কারণে এ বছর আইপিএল খেলতে না পারা সাকিবের জন্য নতুন ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্ট এলপিএল এলো সৌভাগ্যক্রমে। গত আগস্টে হওয়ার কথা ছিল এ টুর্নামেন্ট। তবে শ্রীলঙ্কান সরকারের সবুজ সংকেত না পেয়ে টুর্নামেন্ট পেছাতে বাধ্য হয় লঙ্কান ক্রিকেট বোর্ড। যা পরে নভেম্বরে স্থানান্তর করা হয়।

সাকিবের সঙ্গে ক্রিস গেইল, ড্যারেন স্যামি, ড্যারেন ব্রাভো, শহীদ আফ্রিদি, রবি বোপারা, কলিন মুনরোদের মতো বৈশ্বিক তারকাদের নাম রয়েছে প্রথমবারের মতো আয়োজিত এই ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্টটির নিলামে। এলপিএলের প্রথম আসরের নিলামে তোলা হবে মোট ১৫০ ক্রিকেটারের নাম।

পহেলা অক্টোবর হবে নতুন এ টুর্নামেন্টের নিলাম। পাঁচ ফ্র্যাঞ্চাইজির প্রতিটি দল ৬ জন বিদেশি ক্রিকেটার ভেড়াতে পারবেন দলে। এছাড়াও স্থানীয় ক্রিকেটার ভেড়াতে পারবেন মোট ১৩ জন করে। টুর্নামেন্টের পাঁচ ফ্র্যাঞ্চাইজির প্রত্যেকটিতে থাকবে মোট ১৯ জন করে ক্রিকেটার। ফলে সাকিবের দল পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে প্রবল।

আগামী ১৪ নভেম্বর থেকে ৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত চলবে এলপিএলের প্রথম আসর। পাঁচ দলের এই টুর্নামেন্টে মোট ম্যাচ সংখ্যা ২৩টি। আর ম্যাচগুলো আয়োজিত হবে মোট তিন ভেন্যুতে, যথাক্রমে ডাম্বুলা, পাল্লেকেলে ও হাম্বানটোটায়।