আইনি জটিলতায় এ আর রহমান

এবার আইনি জটিলতায় পড়তে যাচ্ছেন অস্কার জয়ী সঙ্গীতজ্ঞ এ আর রহমান। গুণী এই শিল্পীর বিরুদ্ধে কর ফাঁকি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। আর সেকারণে ইনকাম ট্যাক্স বিভাগের মামলার সূত্র ধরে মাদ্রাজ আদালত নোটিশ দিয়েছে তাকে।

এ আর রহমানের বিরুদ্ধে অভিযোগের কারণ হিসেবে আয়কর বিভাগ জানিয়েছে, প্রায় সাড়ে ৩ কোটি টাকার আয়ের কর ফাঁকি দিয়েছেন এ আর রহমান। ২০১১-১২ অর্থবছরে যুক্তরাজ্যের একটি মোবাইল সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানের এক্সক্লুসিভ রিংটোন কম্পোজ করে ৩ কোটি ৪৭ লাখ টাকা আয় করেন তিনি। ওই প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে তিনবছর মেয়াদি একটি চুক্তি সাক্ষর করেন রহমান।’

আয়কর বিভাগের আইনজীবীর কথায়, ‘২০১১ সালে রহমানের ফাউন্ডেশনে যে ৩ কোটি ৪৭ লাখ টাকা ট্রান্সফার হয়েছে, সেটা মূলত শিল্পীর পারিশ্রমিক। তবে এই টাকা সরাসরি তার ব্যাংক অ্যাকাউন্টে আসা উচিত ছিলো। কেননা এই টাকা করের আওতাভুক্ত। কিন্তু সেটা না করে তিনি ফাউন্ডেশনে ট্রান্সফার করেছেন। তাই শিল্পীর বিরুদ্ধে একটি মামলা রুজু করা হয়েছে।’

ভারতীয় গণমাধ্যমে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, যে আয়ের উপর কর দেওয়া বাধ্যতামূলক তা অবশ্যই এ আর রহমানের ব্যাংক হিসাবে যোগ হওয়া উচিত ছিলো। এরপর যাবতীয় করের টাকা পরিশোধ করে দাতব্য সংস্থায় দিতে পারতেন। কেননা দাতব্য সংস্থায় দেওয়া অর্থ সবসময়ই করমুক্ত হয়ে থাকে।

এ আর রহমানের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ উঠার পরে শিল্পীকে কোনো মন্তব্য করতে দেখা যায়নি। হয়তো আইন মেনেই পরবর্তী পদক্ষেপ নিবেন ‘জয় হো’ খ্যাত এই সঙ্গীত পরিচালক।